কক্সবাজারে ৮ বাংলাদেশিকে তুলে নিয়ে গেছে রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীরা

কক্সবাজারের টেকনাফের খালে মাছ ধরতে যাওয়া আট বাংলাদেশিকে তুলে নিয়ে গেছে রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীরা।

রোববার (১৮ ডিসেম্বর) বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে বাহারছড়া ইউনিয়নের জাহাজপুরা পাহাড়ে বনিরছড়া খাল থেকে তাদের অপহরণ করা হয়। এরপর থেকে পরিবারের কাছে মোবাইল ফোনে মুক্তিপণ হিসেবে তিন লাখ টাকা দাবি করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন স্বজনরা।

অপহৃত আটজন হলেন- টেকনাফের উপকূলীয় বাহারছড়া ইউনিয়নের রশিদ আহমদের ছেলে মোহাম্মদ উল্লাহ, ছৈয়দ আমিরের ছেলে মোস্তফা কামাল, তার ভাই
করিম উল্লাহ, মমতাজ মিয়ার ছেলে মো. রিদুয়ান, রুস্তম আলীর ছেলে সলিম উল্লাহ, কাদের হোসেনের ছেলে নুরুল হক, রশিদ আহমদের ছেলে নুরুল আবছার ও নুরুল হকের ছেলে নুর মোহাম্মদ।

সোমবার (১৯ ডিসেম্বর) দুপুর ১টার দিকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন টেকনাফ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আব্দুল হালিম।

পরিবারের বরাত দিয়ে ওসি হালিম জানান, রোববার (১৮ ডিসেম্বর) বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে বাহারছড়া ইউনিয়নের জাহাজপুরা পাহাড়ে বনিরছড়া খালে মাছ শিকার করতে গেলে অস্ত্রেরমুখে মুখোশধারী রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীরা তাদের জিম্মি করে নিয়ে যান।

এ দিকে মোস্তফা ও করিম নামে দুজন অপহরণ হয়েছেন বলে দাবি করেছেন তাদের বড় ভাই হাবিব উল্লাহ। তিনি জানান, পাহাড়ের ছড়ার খালে মাছ ধরার সময় হঠাৎ করে অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীরা নেমে এসে তাদের সবাইকে জিম্মি করেন। পরে তাদের অপহরণ করে পাহাড়ের ভেতরের দিকে নিয়ে যাচ্ছে বলে মোবাইল ফোনে জানিয়েছেন তার ভাই মোস্তফা। এরপর থেকে তার ফোন বন্ধ রয়েছে। পরে ভিন্ন ভিন্ন নাম্বার থেকে ফোন করে মুক্তিপণ হিসেবে তিন লাখ টাকা দাবি করা হচ্ছে।

বাহারছড়ার ইউপির প্যানেল চেয়ারম্যান এবং ৫নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য হুমায়ুন কাদের বলেন, রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীর হাতে অপহৃত আটজনকে এখন পর্যন্ত উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। মাছ শিকার করতে গিয়ে তারা সন্ধ্যা পর্যন্ত কেউ ফেরত না আসায় বিয়ষটি স্থানীয় প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধিদের অবহিত করেছে ভুক্তভোগী পরিবারগুলো।

এ বিষয়ে বাহারছড়া পুলিশ তদন্তকেন্দ্রের পরিদর্শক মশিউর রহমান বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গেছে। তাদের উদ্ধারের চেষ্টা চলছে। পরে বিস্তারিত জানানো হবে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *