পুলিশ ক্যাডার কাপল একসাথে প্রমোশন পে‌য়ে হ‌লেন অ‌তি‌রিক্ত পু‌লিশ সুপার!

CoverNews Pro

জাহিদুল ইসলাম ও শামীমা আক্তার সুমি সবেমাত্র অতিরিক্ত পুলিশ সুপার পদে পদোন্নতি পেয়েছেন। রোববার (২ মে) স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের উপসচিব ধনঞ্জয় কুমার দাস স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে তাদের পদোন্নতি দেওয়া হয়।

সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার থেকে একই সঙ্গে ছেলে ও মেয়ের জামাই পদোন্নতি পেয়ে খুশি জাহিদুল ইসলামের বাবা আবদুল হাই। এ জন্য তিনি সরকারকে ধন্যবাদ জানান।

৩৩তম বিসিএস কর্মকর্তা জাহিদুল ইসলাম বর্তমানে ঢাকা মেট্রো পুলিশের মতিঝিল জোনের সহকারী কমিশনার হিসেবে কর্মরত।

আর একই বিসিএস কর্মকর্তা শামীমা আক্তার; তিনি বিশেষ শাখায় (এসবি) সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার হিসেবে কর্মরত আছেন।

দুই সন্তানের জনক জাহিদুল ইসলাম বরগুনা সদর উপজেলার এম বালিয়া তলী ইউনিয়নের আব্দুল হাইয়ের ছেলে। দুই ভাই ও এক বোনের মধ্যে জাহিদ সবার বড়।

জাহিদুল ইসলাম বরগুনা কলেজিয়েট মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ২০০৪ সালে এসএসসি এবং বরিশাল বিএম কলেজ থেকে ২০০৮ সালে এইচএসসি পাস করেন।

এরপর ২০০৭-০৮ শিক্ষাবর্ষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগে ভর্তি হন।

অন্যদিকে মাদারীপুরের মেয়ে শামীমা আক্তার ২০০৪ সালে এসএসসি এবং ২০০৬ সালে এইচএসসি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন।

এরপর তিনি ইউনাইটেড ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি থেকে স্নাতক হন। তিনি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক করেছেন। দুই ভাই ও এক বোনের মধ্যে শামীমা সবার ছোট।

জাহিদুল ইসলামের ঘনিষ্ঠ বন্ধু মইনুল হোসেন ইমরান ঢাকা পোস্টকে বলেন, জাহিদ অতিরিক্ত পুলিশ সুপার পদে পদোন্নতি পেয়েছেন শুনে আমি খুবই আনন্দিত।

একই সঙ্গে জাহিদের স্ত্রীরও পদোন্নতি হওয়ায় খবরটি আরও পূর্ণাঙ্গ হয়েছে। এই গর্বিত দম্পতিকে অভিনন্দন। ”

জাহিদুল ইলামের বাবা আব্দুল হাই ঢাকা পোস্টকে বলেন, গতকাল (রোববার) খবরটি শুনে আমি ও আমার পরিবার খুবই খুশি। আমার এলাকার মানুষ খুশি।

তারা যেন তাদের দায়িত্ব সঠিকভাবে পালন করতে পারে সেজন্য আমি তাদের জন্য মঙ্গল কামনা করছি।

এদিকে, পদোন্নতির পর ফেসবুকে এক পোস্টে নির্মাতাকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন দুজনেই। তিনি সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতাও প্রকাশ করেন। তিনিও দোয়া চেয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *