বিসিএস প্রিলির প্রস্তুতির মধ্যে যে কাজগুলো বর্জন করবেনঃ একজন ক্যাডারের দেওয়া পরামর্শ!

বিসিএস প্রিলির প্রস্তুতির মধ্যে যে কাজগুলো বর্জন করবেনঃ একজন ক্যাডারের দেওয়া পরামর্শ!

বিসিএস প্রিলির প্রস্তুতির মধ্যে যে কাজগুলো বর্জন করবেনঃ একজন ক্যাডারের দেওয়া পরামর্শ!

৩৮তম বিসিএস সাধারণ শিক্ষায় (সুপারিশপ্রাপ্ত) একজন ক্যাডারের দেওয়া পরামর্শ:
১. ইংরেজি সাহিত্যের প্রস্তুতির জন্য কোচিং থেকে দেওয়া গাদা গাদা লেকচার শিট বা আলাদা বই ফলো করবেন না। শুধু যেকোনো একটি ডাইজেস্ট বই পড়লেই ইংরেজি সাহিত্য অংশে ১০-১২ নম্বর কমন পাবেন। এসব ৮০ থেকে ১০০ পৃষ্ঠার বই পড়লে বাকিসব বিষয় ভুলে যাবেন।
২. সাম্প্রতিক প্রশ্নের ৪/৫ নাম্বারের জন্য বাজারের বিভিন্ন রকম বস্তাপঁচা বই পড়বেন না। সাম্প্রতিকের জন্য আলাদা কোন বই লাগে না। সাধারণ জ্ঞানের সম্পূর্ণ সিলেবাসের জন্য, যেকোনো একটা প্রকাশনীর বই পড়লেই যথেষ্ট।.
৩. নৈতিকতা ও সুশাসন বিষয়টা পড়া পুরোপুরি বাদ দেন, এটা দেয়া হয় আপনার নম্বর কেটে আপনেকে ফাঁদে ফেলার জন্য। এটা পড়লে ধরা খাবেন, কিন্তু না পড়লে ৩/৪ এমনিতেই কমন পাবেন।
৪. সারাবছর সাধারণ জ্ঞান ও ভূগোল পড়ে পড়ে পাগল হবেন না। এখানে অনিশ্চিত সাধারন জ্ঞানে ৫০ ও ভূগোলের ১০ নম্বরের জন্য প্রিপারেশন নষ্ট না করে, বাকি ১৩০ নম্বরের জন্য আরও বেশি সময় দিন। এগুলোতে নিশ্চিত কমন পাবার মত প্রশ্ন আছে।
৫. যেকোনো বিষয়ে একটা করে ভালো প্রকাশনীর বই পড়ুন, অতিরিক্ত বই পড়া আপনার ভালো প্রিপারেশন নষ্ট করব।।
৬. যতটুকু সম্ভব গুছিয়ে কম তথ্য পড়ুন এবং প্রয়োজনীয় তথ্য মাথায় রাখুন। রাস্তা-ঘাটে যে যা বলবে তাই মুখস্থ করলে, সব ভুলে যাবেন।

মোটামুটি সব সময় কমন কিছু প্রশ্নই আসে, কাজেই বেছে বেছে দরকারি অংশগুলোই পড়ুন এবং বাকিগুলোর উপর কম গুরুত্ব দিন।
আর একটা কথা মনে রাখবেন, বিসিএস বা সরকারি চাকরিই জীবন না। যেকোনো নৈতিক পেশা অবলম্বন করে, সুষ্ঠ-সুন্দরভাবে পরিবার-পরিজন নিয়ে শান্তিতে থাকাটাই মূল বিষ।। সকলের জন্য রইলো শুভকামনা। আল্লাহ হাফেজ।

লেখক- পেইজের এডমিন প্যানেলের সদস্য, ৩৮তম বিসিএস সাধারণ শিক্ষা (সুপারিশপ্রাপ্ত)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *